অর্থমন্ত্রী বলেছেন আগামী পাঁচ বছরে এক কোটিরও বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বা তৈরি করা হবে

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল বলেছেন যে আগামী পাঁচ বছরে এক কোটিরও বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন দেশ ও দেশের বাহিরে মেগা প্রকল্প গুলোতে সঠিকভাবে বেকার মানুষ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে তাতে বাংলাদেশের বেকারত্ব কমবে এবং তিনি মনে করেন বাংলাদেশের যতগুলো মেগা প্রকল্প আছে তা বাস্তবায়নে সরকার কাজ করছে এবং মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশের বেকারত্ব ও কর্মসংস্থান বাড়বে ।

মেগা প্রজেক্ট তৈরি ও অর্থনৈতিক অঞ্চলের মাধ্যমে বেকারত্ব দূর হবে ও অর্থনৈতিক উন্নতি লাভ পাবে এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে তাতে মানুষগুলো বা বেকারত্ব দূর করে একটি সুন্দর জীবন সৃষ্টি করতে পারবে বাংলাদেশের উন্নয়ন ফোরামের মিটিং শেষে তিনি আজ এ কথা বলেছেন ।
তিনি বলেন সরকারি আয় বাড়ানোর জন্যও সরকারি বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য দেশের রাজস্ব আয় বাড়ানোর জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে তার হাত ধরে বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে তার সততা ও তার কাজ কর্মে জনগণ আজ বাংলাদেশের জনগণ তার প্রতি খুবই শ্রদ্ধা প্রদর্শন করছে

তিনি আরো বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা 100 টি অর্থনৈতিক অঞ্চল সৃষ্টি করেছেন একশটি অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরি করেছেনএগুলো নানারকম সুবিধা দেয়া হচ্ছে যাতে বেকারত্ব দূর হয় ও দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি হয়

তিনি আরো বলেন যে গতিতে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে ও বাংলাদেশ উন্নতি হচ্ছে তিনি বলেন যে আমাদের সামনের দিকে অর্থনীতি ও বেকারত্ব সমস্যা হবেনা বেকারত্ব আমাদের দেশ থেকে দূর হবে যে গতিতে আমাদের দেশে গিয়েছে সে গতিতে বেকারত্বের হার নিমিষেই কমে দাঁড়াবে 00 তে

অর্থমন্ত্রী আরো বলেন আমাদের রাজস্ব আয় কম কিন্তু যতটা কম বলা হয় ততটা কম না

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন বিশ্বের এমন কোন দেশ নাই যে বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে কর ছাড় দেয় আগামীতে আমরা এই কর ছাড়ের একটা তালিকা তৈরি করব এবং সেগুলো হিসাব করা হবে
এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বের হয়ে গেলে একটু চাপ তৈরি হবে তা থেকে আমরা নিজেরাই পথ খুঁজে বের হব বা আমরা আমাদের নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবো

অর্থমন্ত্রী বলেন গত 10 বছরে প্রবৃদ্ধি অর্জনের বিশ্বের অনেক দেশের চেয়েও আমরা এগিয়ে আছি তিনি আরো বলেন কিছু পেতে হলে কিছু দিতে হয় তিনি বলেন 2024 ও 26 সালের মধ্যে বাংলাদেশ হংকং মালোশিয়া সিঙ্গাপুর ও কানাডা কে ছাড়িয়ে যাবে

এবং একই অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন দেশের উন্নয়নে ও জলাবদ্ধতা দূর করার জন্য অন্যান্য দেশগুলোর প্রতি বছর 100 কোটি ডলার বিনিয়োগ করে এবং জলাবদ্ধতা দূর করে যাতে মানুষের ভোগান্তির না হয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রত্যেকটি মানুষকে তার নিজ নিজ কাজ করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন এসডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ব্যাপক বিনিয়োগ বাড়ানো দরকার এবং বিনিয়োগ বাড়ানোর ফলে বাংলাদেশে এসডিসি বাস্তবায়ন হবে যাতে নাগরিকও বাংলাদেশের সুযোগ ও ভালোভাবে প্রচুর সম্পদ লাগবে সম্পদের পাশাপাশি দক্ষ জনশক্তি লাগবে দক্ষ জনশক্তি গড়ার লক্ষ্যে আমরা আমাদের সরকার কাজ করে যাচ্ছে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর মশিউর রহমান আশা করেন এস ডি জি বাস্তবায়নে আমরা অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছি তিনি বলেন আমরা এসডিজি বাস্তবায়নের একদম শেষ প্রান্তে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন আমরা জাতিসংঘের পরামর্শ অনুযায়ী আমরা কাজ করছি এবং প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ অনুযায়ী আমরা এগিয়ে যাচ্ছি

এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী মশিউর মশিউর রহমান আরও বলেন বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়াতে হবে বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়ানোর ফলে দেশ ও দেশের জনগণের উন্নয়নের সরকার ভালোভাবে কাজ করতে পারবে ।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *