কেন্দ্র দখল আমার দেখা অনেকগুলো কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ তবে এর সংখ্যা আরো বেড়ে যেতে পারে : ইশরাক হোসেন

বিএনপি কখনো কেন্দ্র দখল করে না তবে বিএনপির কেন্দ্র পাহারা দিবে, বিএনপি নেতাকর্মীরা।
আজ শুক্রবার  দুপুরে গুলশানে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিক প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক কালে ইশরাক হোসেন এ কথা বলেন বিএনপির কেন্দ্র কখনো দখল করে না তারা কেন্দ্রে পাহারা দিবে ।
ইশরাক আরো বলেন আমি মনে করি জনগণ আমাদের সাথে আছে জনগণ ভালো-খারাপ দেখে ভোট দিবে জনগণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কাকে ভোট দিবে,
তাই তাদের ভোট দেওয়ার জন্য আমাদের দলের পক্ষ থেকে যা যা করণীয় আমরা দলের কথা অনুযায়ী তাতা করব আমরা প্রত্যেকটি কেন্দ্র পাহারা দিব এবং দখলমুক্ত করব এবং জনগণের স্বার্থে সুষ্ঠুভাবে নিরাপদে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিব যাতে জনগণ নির্ভয়ে সুষ্ঠু পরিবেশে নিজের ভোট নিজে প্রদান করতে পারে ।

এবং ইশরাক আরো বলেন অনেক কেন্দ্র থেকে বিএনপি’র এজেন্টদের বের করে দেয়া হচ্ছে এবং বিএনপি সমর্থিত লোকদের বের করে দেয়া হচ্ছে,
আজ সকাল ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের বিএনপি সমর্থিত এক নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমানের হাবিবুল্লাহ মডেল কলেজ কেন্দ্রের ভিতর প্রবেশ করতে বাধা দেন,
ওই সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের ও  বিএনপি প্রার্থীর এজেন্টের জোর করে কেন্দ্রের ভিতরে ঢুকতে চেয়েছিল একসময় তাদের মধ্যে হাতাহাতি ও চড়-থাপ্পড় শুরু হয় এবং বিএনপি প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান কেন্দ্রের ভিতরে প্রবেশ করেন ।
বিএনপি’র 1 নং ওয়ার্ডের মনোনীত কমিশনার প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন আমাদের কে আওয়ামী লীগের কর্মীরা বাধা দেয় একপর্যায়ে সেখানে পুলিশ ও মিডিয়াকর্মীরা ছিল কেউ কোনো কথা বা ব্যবস্থা নেননি ।

এবং এক ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন মোস্তাফিজুর রহমান যে মন্তব্য বা যে বক্তব্য দিয়েছে তা সম্পূর্ণ ভুল মিথ্যে আতিকুল ইসলাম বলেন আমি যখন কেন্দ্রে এসেছি তখন কেন্দ্রের কোন হাতাহাতি গোলাগুলি দেখিনি সুন্দর ও সুষ্ঠু পরিবেশ দেখেছি ।
আতিকুল ইসলাম বলেন আমি যখন কেন্দ্রে তখন মোস্তাফিজুর রহমান কাউন্সিলর প্রার্থী তিনি আমাকে বুকে জড়িয়ে ধরেছেন, আমি মনে করি সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে বোট হচ্ছে আমি আরো মনে করি আমাদের মাঝে এরকম সুন্দর সম্পর্ক হওয়া উচিত যাতে আমরা একসাথে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে পারি ।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *